• শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন |
  • English Version
ব্রেকিং নিউজ :
মাদারগঞ্জের গুনারীতলার সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আয়নার নেতৃত্বে একটি পরিবারকে উচ্ছেদ ও অবরূদ্ধ রাখার অভিযোগ জামালপুর সদর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আবুল হোসেনের মতবিনিময় সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত  চাকুরির মেয়াদ শেষ করেও দায়িত্ব ছাড়ছেন না জামালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক  ৭ বছর ধরে নিখোঁজ তেজগাঁও কলেজের উপাধ্যক্ষ, উদ্ধারের দাবিতে জামালপুরে মানববন্ধন সরকারের মেগা প্রকল্পের নামে বড় ধরণের দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে———  মোস্তফা আল মাহমুদ  জামালপুরে বাবুর নেতৃত্বে যুবদলের ৪৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত জামালপুরে সোহেল রানার নেতৃত্বে যুবদলের ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত  জামালপুরে তথ্য সংরক্ষণ ও বিনিময় শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত শাকিরুজ্জামান রাখালকেই দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দেখতে চায় তৃুণমূল নেতা-কর্মীরা ১১ নং তীর্থ সত্যপীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কে আধুনিক ও মডেল বিদ্যালয় হিসেবে রূপান্তর করতে চাই—- প্রধান শিক্ষক শিরিনা বেগম

সাফল্যের ধারা অব্যাহত-ই নথিতে ২৭ জেলার মধ্যে জামালপুর আবারো প্রথম

ফজলে এলাহী মাকামঃ
বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখে আবারো ই নথিতে বাংলাদেশের বি ক্যাটাগরির ২৭ জেলায় মধ্যে ১ম স্থান অধিকার করেছে জামালপুর জেলা। এ সুসংবাদ শুধু জেলা প্রশাসনের নয় গোটা জামালপুর বাসীকে বাংলাদেশের মাঝে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে।

তথ্য ও প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে সরকারের জনবান্ধব নীতি বাস্তাবায়ন , দাপ্তরিক কাজে জনগনের ভোগান্তি কমাতে ও সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় দাপ্তরিক সেবা পৌঁছে দেওয়ার প্রত্যয়ে ই-নথিতে জামালপুর জেলা পরপর এপ্রিল ও মে মাসে ১ম স্থান অধিকার করেছে। জামালপুর জেলা প্রশাসন বি ক্যাটাগরিতে ২৭ টি জেলার মধ্যে এবারও মে মাসে সারাদেশে ১ম স্থান অধিকার করেছে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
বি ক্যাটাগরিতে ২৭ টি জেলার মধ্যে এবার মে মাসেও সারাদেশে ১ম স্থান অধিকার করায় জামালপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সকল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন জামালপুর জেলার সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ এনামুল হক।

নদী ভাঙন ও বন্যা কবলিত পিছিয়ে থাকা জামালপুর জেলাকে এগিয়ে নিতে গেল বছরের ২৬ আগষ্ট জামালপুর জেলায় যোগদানের পর থেকেই জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হকের গতিশীল নেতৃত্ব ,তথ্য প্রযুক্তি সম্বলিত উদ্ভাবনী কলাকৌশল,বিচক্ষনতা,স্বচ্ছতা ও জবাদিহিতা নিশ্চিত করে ডিজিটাল ই-নথির মাধ্যমে দাপ্তরিক কাজ সম্পন্ন করার মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজে আরও এগিয়ে গেল জামালপুর। তারই অংশ হিসেবে জেলা পরপর এপ্রিল ও মে মাসে ই নথি কার্যক্রমে জামালপুর জেলা প্রথম স্থান অধিকার করেছে।

জানা গেছে, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক দায়িত্ব গ্রহণকালে জামালপুর ছিল ২৭ জেলার মধ্যে ২৬তম। মাত্র অল্প সময়ের ব্যবধানে এ অর্জন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক এর সৃষ্টিশীলতা,দায়িত্ববোধ,জামালপুর জেলার মানুষের প্রতি অফুরন্ত ভালবাসা, কঠোর পরিশ্রম আর জেলাবাসীর প্রতি ত্যাগেরই বহিঃপ্রকাশ। শুধু – নথিতেই নয় বর্তমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ এনামুল হক জেলার সকল দপ্তরের সাথে নিয়মিত সমন্বয় রেখে কঠোর নজরদারির মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কাজ করে যাচ্ছে । এছাড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সকল বিভাগ এর নির্বাহী ম্যাজিষ্টেটগণও রাত দিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে।জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক এর নির্দেশনায় নির্বাহী ম্যাজিস্টেটগণ জীবনের ঝঁিক নিয়েই এই করোনা মোবাবিলায় সাধারন মানুষের কাছে স্বশরীরে গিয়ে কিংবা ফোনের মাধ্যমে রাতে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য পৌঁছে দিয়ে আসছে। এছাড়া গত ২০ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে স্বাস্থ্য বিধি মানতে ও সামাজিক দুরত্ব বাজায় রাখতে জেলায় জনসাধারনকে নিয়মিত সচেতন করার পাশাপাশি অসাধু ব্যবসায়ী ,কালোবাজারী ও সরকারী আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ২ হাজার ১৯২ জকে ৩৮ লাখ ৮৯ হাজার ১শ টাকা জরিমানা ও ৩জনকে ২৬ দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও এনডিসি মোঃ আবু আব্দুল্লাহ খাঁন বলেন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক স্যারের এর সঠিক দিক নির্দেশনাতেই আমাদের সাফল্যের ধারা অব্যহত রয়েছে। আমরা চাই
জনগনের ভোগান্তি কমাতে স্যারের নির্দেশমত আমরা সকলেই আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছি। যাতে পিছিয়ে পড়া জামালপুর উন্নত ও সমৃদ্ধশালী জামালপুর হয়ে বাংলাদেশের মডেল হতে পারে। তারই বহিঃপ্রকাশ আজ ই-নথিতে পরপর দুই বার এপ্রিল ও মে মাসে বি ক্যাটাগরিতে ২৭টি জেলার মধ্যে মে মাসেও সারাদেশে ১ম স্থান অধিকার অর্জন করা।
এ ব্যাপারে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ মোখলেছুর রহমান জানান, বর্তমান সরকারের চাহিদা অনুযায়ী জেলা প্রতিটি অফিস আদালতের কাজই ই নথিতে করার নিদেশনা রয়েছে। তারই আলোকে আমরা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক স্যারের এর সঠিক দিক নির্দেশনাতেই কাজ করে জামালপুর জেলাকে এগিয়ে নিতে কাজ করছি।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন,সরকারের ই-সেবা কার্যক্রমের মাধ্যমে জনগনকে কোনপ্রকার ভোগান্তি ছাড়া সরকারী দাপ্তরিক সেবা দেবার প্রয়াশ নিয়ে জেলা প্রশাসনের প্রতিটি বিভাগের কর্মকর্তারা নিরলশ ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যাতে ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রকৃত সেবা পেতে ও সরকারের জনবান্ধব নীতি বাস্তবায়ন, ভোগান্তি হ্রাস ও তথ্য ও প্রযুক্তির মাধ্যমে কাজকে সহজ দুনীর্তিমুক্ত করে সাধারন মানুষ প্রকৃত সেবা পেতে পারে।

তারই ধারাবাহিতকায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ই-নথি তথা অনলাইনে দাপ্তরিক কাজে একদিকে মানুষ যেমন খুব দ্রুত সেবা পাচ্ছে অন্যদিকে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতাও নিশ্চিত হচ্ছে।

এজন্য জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সকল বিভাগের কর্মতকর্তাগনকে ধন্যবাদ দিয়ে আরো আন্তরিকতার সাথে কাজ করার নির্দেশনা দেন তিনি। যাতে আগামীতে এই সাফল্যের ধারা বজায় থাকে।

জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ এনামুল হক এর নেতৃত্বে জেলায় প্রত্যেকটি কাজেই বাংলাদেশের মাঝে প্রথম হতে কাজ করে যাবে জেলা প্রশাসন এমনটি প্রত্যাশা জামালপুরবাসীর।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।