• সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০:৫১ অপরাহ্ন |
  • English Version
ব্রেকিং নিউজ :
স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে শেখ হাসিনা পল্লী উন্নয়ন একাডেমী জামালপুরের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত জামালপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আন্তঃ কলেজ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন জামালপুর জেলা পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত বকশীগঞ্জে গরুকে গোসল করাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু জামালপুরে দুর্নীতিবিরোধী বিতর্ক অনুষ্ঠান বকশীগঞ্জে জাতীয় ভিটামিন’এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিতকরন ও পরিকল্পনা সভা জামালপুরে ৬৫ বছরের পুরনো গবা খাল পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু জামালপুর ডিবির ওসি কাজী শাহনেওয়াজ এর অভিযানে ৪০(চল্লিশ) কেজি গাজাঁ সহ ইউপি সদস্য গ্রেফতার জামালপুরে হিজড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে অংশীজনদের সাথে মতবিনিময় বকশীগঞ্জে সভাপতির বিরুদ্ধে স্কুলের ১৩টি গাছ বিক্রির অভিযোগ

বকশীগ‌ঞ্জে ব্যবসায়ী নেতা আঃ হামিদের উপর সন্ত্রাসী হামলা

 

মতিন রহমান,বকশীগঞ্জ(জামালপুর)প্রতিনিধি।

জামালপু‌রের বকশীগ‌ঞ্জ শিল্প ও ব‌ণিক স‌মি‌তির সা‌বেক সাধারন সম্পাদক,প্রথম শ্রেণীর ঠিকাদার ব্যবসায়ী আঃ হা‌মি‌দের উপর সন্ত্রাসী হামলা, মারপিট ও ছিনতাই এর ঘটনা ঘটেছে।খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

বুধবার (২২ মে) রাত ১১টার দিকে দিকে বকশীগঞ্জ থানা রো‌ডে এ হামলা ও ছিনতাই এর ঘটনা ঘটে।

ব্যবসায়ী আঃ হা‌মিদ জানান,বকশীগঞ্জ পৌরসভার মেষেরচর পূর্বপাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমান হবির ছেলে মিন্টু মিয়ার সাথে পূর্ব হইতে বিভিন্ন বিষয়াদী নিয়ে আমার বিরোধ চলিতেছে। উক্ত বিরোধ কে কেন্দ্র করিয়া বিভিন্ন সময় আমার ক্ষতি করার জন্য পায়তারা করিতে থাকে। বুধবার রাতে পাখিমারা হইতে পায়ে হাটিয়া বকশীগঞ্জ বাজারে দিকে যাওয়ার পথে থানা রোডে পূর্ব হইতে লোহার রড ও কাঠের লাঠি নিয়া উৎপাতিয়া থাকিয়া আমাকে পাইয়া আমার সামনে দাড়াইয়া পথরোধ করিয়া অকথ্য ভাষায় গালাগালি করিতে থাকে। আমি গালাগালি করিতে নিষেধ করিলে মিন্টু মিয়া তাহার হাতে থাকা কাঠের লাঠি দিয়া হত্যার উদ্দেশ্যে মাথা লক্ষ্য করিয়া বারি মারিলে স্থানীয়রা আমাকে রক্ষা করার জন্য ধাক্কা মারে। ইহাতে উক্ত বারি আমার বাম পায়ের উরুতে লাগিয়া ফুলা জখম হয়। আমার হাত ব্যাগে থাকা ব্যবসার নগদ সাত লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা আমার নিকট থেকে কাড়িয়া নেয়। আমি বাধা নিষেধ করিলে আমাকে এলোপাথারী কিল ঘুষি মারিয়া এবং বুকে পিঠে জখম করে এবং হুমকি দেয় আমাকে যেকোন মূল্যে খুন করিয়া লাশ গুম করিয়া ফেলিবে। আমি আসামীদের ভয়ে থানায় ফোন করি।এসময় স্থানীয় লোকজন আসিয়া আমাকে প্রাণে রক্ষা করে। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থলে এলে তারা পালিয়ে যায়।রাতেই আমি থানায় উপস্থিত হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দিয়েছি। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিচার চাই।

বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। ভুক্তভোগী আঃ হামিদ এ ঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।